অরিগনেশীয় সংস্কৃতি | The Aurignacian Culture

অরিগনেশীয় সংস্কৃতি [The Aurignacian Culture] হল ইউরোপীয় প্রথম আধুনিক মানুষের [European Early Modern Humans] সাথে সম্পর্কিত উচ্চ প্রাচীন প্রস্তরযুগের [Upper Paleolithic] একটি প্রত্নতাত্ত্বিক ঐতিহ্য। প্রস্তর যুগের এ সংস্কৃতিটি আজ থেকে প্রায় ৩৪,০০০ – ২৭,০০০ বছর পৃথিবীতে স্থায়ী ছিল। ফ্রান্সের দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত অরিগনাক নামক স্থানে এ সংস্কৃতির প্রত্নবস্তু আবিষ্কৃত হয়। আবিষ্কৃত প্রত্নবস্তুগুলো মূলত হাড় [bone] ও প্রস্তর [stone] দিয়ে তৈরী বিভিন্ন উপকরণ। যেমন- বাটালি [burin], চাঁচুনি [scraper], ফলক [flake], ব্লেড [blade] প্রভৃতি। মনে করা হয় যে, অরিগনেশীয় প্রত্নবস্তুগুলোকে ইউরোপ মহাদেশীয় আধুনিক মানুষের [Homo Sapiens Sapiens] সংস্কৃতির উপকরণ। এ সংস্কৃতিটির শুরু দক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়াতে এবং পরবর্তীতে ইউরোপে প্রসারিত হয়েছিল। তবে এ সম্পর্কে প্রত্নতাত্ত্বিকদের বিভিন্ন মতামত রয়েছে। অনেক প্রত্নতাত্ত্বিক মনে করেন, অরিগনেশীয় সংস্কৃতি হল আধুনিক মানুষ [Homo Sapiens Sapiens] ও নিয়ান্ডারথাল [Neanderthal] মানুষের মধ্যে আন্ত:ক্রিয়ার ফলে সৃষ্ট একটি অভিযোজিত সংস্কৃতি। উল্লেখ্য যে, নিয়ান্ডারথাল মানুষ হল আধুনিক মানুষের মাত্র একধাপ আগের পূর্ব-পুরুষ। ধারণা করা হয় যে, ৪র্থ হিমযুগ শুরুর সাথে সাথে শারীরিক বৈশিষ্ট্য বিবর্তিত হয়ে নিয়ান্ডারথাল মানুষ ক্রমশ আধুনিক মানুষে পরিণত হয়।

চিত্র: আবিষ্কৃত অরিগনেশীয় প্রত্নবস্তু। ‍photo source: collected.


Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *