ইতিহাস ও ঐতিহ্যের ধারণা | Conception of History & Heritage

বাংলা ব্যাকরণের সন্ধি বিচ্ছেদ ‘ইতিহ + আস = ইতিহাস’। জানা যায় যে, ‘ইতিহ’ শব্দ থেকে ‘ইতিহাস’ শব্দটির উৎপত্তি। ‘ইতিহ’ শব্দটির অর্থ হল ‘ঐতিহ্য’। এখানে ‘ঐতিহ্য’ বলতে প্রাচীন বা অতীতকালের অভ্যাস, কাজ, ভাষা, শিক্ষা, শিল্প, সাহিত্য, স্থাপত্য, সংস্কৃতি, প্রযুক্তি প্রভৃতিকে বুঝায়, যা ভবিষ্যৎ কালের জন্য সংরক্ষিত রাখা হয়। আর এ ঐতিহ্যকে এক প্রজন্ম থেকে আরেক প্রজন্মের কাছে পৌঁছানোর কাজটি করে থাকে ‘ইতিহাস’। অতীতকালের সকল কর্মকাণ্ডের বা বিষয়ের ধারাবাহিক এবং ঐতিহ্যের বস্তুনিষ্ঠ বিবরণই হল ইতিহাস।

ইতিহাসবিদ ই. এইচ. কার-এর মতে, ইতিহাস হল বর্তমান ও অতীতের মধ্যকার এক অন্তহীন সংলাপ।

ঐতিহাসিক ড. জনসন-এর মতে, যা কিছু ঘটে তাই ইতিহাস, যা ঘটে না তা ইতিহাস নয়।

গ্রিক শব্দ Historia থেকে ইংরেজি History শব্দটির উৎপত্তি, আর এর বাংলা প্রতিশব্দ হল ‘ইতিহাস’। খ্রিস্টপূর্ব ৫ম শতকে গ্রিক ঐতিহাসিক এবং ইতিহাসের জনক হেরোডোটাস (Herodotus) সর্বপ্রথম তাঁর গবেষণা কর্মের নামকরণে Historia শব্দটি ব্যবহার করেন। Historia শব্দটির আভিধানিক অর্থ হল সত্যানুসন্ধান বা গবেষণা। হেরোডোটাস (Herodotus) মনে করেন যে, যা সত্যিকার অর্থে ছিল বা সংঘটিত হয়েছিল তা অনুসন্ধান এবং লেখাই হল ইতিহাস।

ঐতিহাসিক টয়েনবি-এর মতে, সমাজের জীবনই হল ইতিহাস। মূলতঃ ইতিহাস হল মানব সমাজের অনন্ত ঘটনাপ্রবাহ।

ঐতিহাসিক র‌্যাপসন-এর মতে, ঘটনার বৈজ্ঞানিক এবং ধারাবাহিক বর্ণনা হল ইতিহাস।

জার্মান ঐতিহাসিক এবং আধুনিক ইতিহাসের জনক লিওপোল্ড ফন র‌্যাংক-এর মতে, ইতিহাস হল প্রকৃতপক্ষে যা ঘটেছিল তার অনুসন্ধান এবং তার সত্য বিবরণ। তিনি আরও বলেন যে, ইতিহাস মানেই হল নগ্নসত্য।

সূতরাং পৃথিবীতে মানব সভ্যতার বিকাশের সাথে সম্পর্কিত সকল প্রকারের কর্মকাণ্ডের ধারাবাহিক সত্যনিষ্ঠ এবং ঐতিহ্যের বস্তুনিষ্ঠ বিবরণই হল ইতিহাস। সুদূর অতীতকাল থেকে বর্তমানকাল পর্যন্ত ইতিহাসের পরিসর বিস্তৃত। সত্যকে নির্ভর করে সবসময় সঠিক ইতিহাস রচিত হয়। [সংকলিত]


সংকলক: মো: শাহীন আলম, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর, বাংলাদেশ।


 

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *