ধনঞ্জয়ের মঠ | কুমিল্লা

ধনঞ্জয়ের মঠ

 অবস্থান | Location

ধনঞ্জয়ের মঠ কুমিল্লা জেলাধীন আদর্শ সদর উপজেলার পাঁচথুবী ইউনিয়নের ধনঞ্জয় নামক গ্রামে অবস্থিত। পাঁচথুবীর শিবের বাজার থেকে আনুমানিক ৪৫০ মিটার উত্তর-পশ্চিম দিকে এবং সোনাইছড়ি নদী থেকে আনুমানিক ৩০০ মিটার দক্ষিণে অবস্থিত প্রাচীন এ মঠটির ভূ-স্থানাঙ্ক (geo-coordinate) হল 23°29’55.0″N 91°12’12.0″E (23.498600, 91.203340)।

স্থাপত‌্যিক বিবরণ | Architectural Description

অষ্টভূজাকার (octagonal) ভূমি পরিকল্পনায় নির্মিত ধনঞ্জয়ের মঠটি সমতল ভূমি থেকে মঠটি আনুমানিক ১৫মিটার উঁচু।  অষ্টভূজাকার মঠটির প্রতিটি বাহুর পরিমাপ ১.৫মিটার। মঠটির দক্ষিণ দেয়ালে একটি প্রবেশপথ রয়েছে। প্রবেশপথটির প্রস্থ ০.৯৫ মিটার এবং উচ্চতা- ২.১০ মিটার। মঠটি নির্মাণে পাতলা ইট এবং গাঁথুনীতে চুন সুরকীর মসলার ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়। আস্তরবিহীন মঠটির বাহির দেয়ালে বিভিন্ন জ্যামিতিক নকশাসহ অর্ধবৃত্তাকার খিলান নকশা দেখা যায়। অষ্টভূজাকার মঠটির মাঝখান থেকে ক্রমশ সরু হয়ে উপরে উত্থিত হয়ে গেছে।

মঠটির ভীতে (foundation) তুলনামূলক বড় আকারের ইট ব্যবহার করা হয়েছে। ভীতে ব্যবহৃত ইটের পরিমাপ ২৭ সে.মি. × ২৪ সে.মি. × ৭ সে.মি.। মঠের উপরের দিকে দেয়ালে ব্যবহৃত ইটের পরিমাপ ১৬ সে.মি. × ১২ সে.মি. × ৭ সে.মি., ১৪ সে.মি. × ১০ সে.মি. × ৬ সে.মি. এবং ১২ সে.মি. × ১০ সে.মি. × ৫ সে.মি.।

ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট | Historical Background

ধনঞ্জয়ের মঠটির প্রকৃত নির্মাণ ইতিহাস সম্পর্কে কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। নির্মাণশৈলী ও নির্মাণ উপকরণ দেখে প্রতীয়মান হয় যে, মুঘল আমলের শেষের দিকে কিংবা ঊপনিবেশিক আমলের প্রথম দিকে ধনঞ্জয়ের মঠটি নির্মিত হয়ে থাকতে পারে (?)।  তবে স্থানীয় কিছু হিন্দু সম্প্রদায় থেকে জানা যায় যে, ধনঞ্জয় গ্রামে বহু বছর আগে থেকেই হিন্দু ধর্মালম্বী সূত্রধর গোত্রের লোকজন বসবাস করত। এ গোত্রের ধনঞ্জয় সুত্রধর নামক একজন ধর্মগুরু এ স্মৃতি মঠটি নির্মাণ করেন। হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন এখানে ধর্ম চর্চা ও ধর্ম দীক্ষা নিতেন। তবে কালের বিবর্তনে ঐ সুত্রধর গোত্রের পরিবারগুলো বিভিন্ন জায়গায় স্থানান্তরিত হয়ে গেছে। তবে কিছু অন্য গোত্রের হিন্দু পরিবার মঠের কাছাকাছি বসবাস করে। বর্তমানে মঠটির ভূমি মালিক স্থানীয় জনাব মোঃ ইউছুব আলী। জানা যায় যে, এ মঠটির ভূমির মালিকানা একাধিক বার হাত বদল হয়েছে।

লেখক: মো. শাহীন আলম  

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *