নড়াইলের স্থাপত্যিক ঐতিহ্য: গোবিন্দদেবের জোড়বাংলা মন্দির



গোবিন্দদেবের জোড়বাংলা মন্দিরটি নড়াইল জেলাধীন লোহাগড়া উপজেলার কোটাকোল নামক গ্রামে অবস্থিত। লোহাগড়া উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৭.৫ কিলোমিটার দক্ষিণ দিকে কোটাকোল গ্রামের অবস্থান। এ গ্রামের দিঘলিয়া-ইতনাগামী রাস্তা থেকে প্রায় ৬৫ মিটার উত্তর পাশে এবং মধুমতি নদীর পশ্চিম তীরে নড়াইলের স্থাপত্য ঐতিহ্য এ জোড়বাংলা মন্দিরটি দেখা যায়। তবে এ মন্দিরটি কোটাকোল জোড়বাংলা মন্দির নামে অনেকের কাছে সুপরিচিত।

মানচিত্র: গোবিন্দদেবের জোড়বাংলা মন্দিরের অবস্থান।


ইতিহাস ও জনশ্রুতি থেকে জানা যায়, আনুমানিক খ্রিস্টীয় ১৮ শতকে মাগুরার রাজা সীতারাম রায়ের দেওয়ান জনৈক সরকার জমিদার এ জোড়বাংলা মন্দিরটি নির্মাণ করেন। এ মন্দিরটি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক ঘোষিত একটি সংরক্ষিত পুরাকীর্তি। বর্তমানে এটি প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের তালিকাভূক্ত ও তত্ত্বাবধানে রয়েছে।

এ জোড়বাংলা মন্দিরটি আয়তাকার ভূমি পরিকল্পনায় নির্মাণ করা হয়। মন্দিরটির দৈর্ঘ্য ৯ মিটার ও প্রস্থ ৮.৫ মিটার। এ মন্দিরটি ভূমি থেকে প্রায় ১ মিটার উঁচু বেদীর উপরে অবস্থিত। মন্দিরটি নির্মাণে পাতলা ইট ও চুন-চুরকি ব্যবহার করা হয়। প্রায় দক্ষিণমুখী মন্দিরটি বাঙ্গালী ঐতিহ্যের দো-চালা ঘরের আদলে নির্মাণ করা হয়। দো-চালাবিশিষ্ট জোড়া ঘরের এ মন্দিরটির দু’টি কক্ষ রয়েছে। মন্দিরের সামনে রয়েছে ছাদহীন একটি বারান্দা। সামনের বারান্দা থেকে মন্দিরের অভ্যন্তরে প্রবেশের জন্য তিনটি প্রবেশপথ রয়েছে। গোথিক খিলানের (gothic arch) এ প্রবেশপথগুলোতে বহুভাজের নকশা (multi-foil)সহ পোড়ামাটির ফলকে নানা ধরনের ফুল, লতাপাতা ও প্রাণীর চিত্র অঙ্কিত রয়েছে। পিছনের কক্ষটি হল মন্দিরের গর্ভগৃহ। সামনের কক্ষ থেকে এ গর্ভগৃহে প্রবেশের জন্য একটি প্রবেশপথ রয়েছে। এ প্রবেশপথটি সামনের প্রবেশপথগুলোর আদলে তৈরী করা হয়। গর্ভগৃহের উত্তর দেয়ালের মাঝামাঝি একটি মূর্তি রাখার প্রকোষ্ঠ (chamber) রয়েছে। মূর্তি রাখার প্রকোষ্ঠের দুই পাশে একটি করে কুলঙ্গি রয়েছে। গর্ভগৃহের পূর্ব দেয়ালে আরো একটি প্রবেশপথ রয়েছে। মন্দিরের সামনের ও অভ্যন্তরের দেয়াল জুড়ে বহু লতা-পাতা, ফুল ও জীবজন্তুর অলংকরণযুক্ত পোড়ামাটির ফলক রয়েছে। মন্দিরে প্রবেশপথগুলোর কপাটে অলংকৃত কাঠ ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া মন্দিরটির দো-চালার উপরে অলংকৃত শীর্ষচূড়া (finial) রয়েছে।


Click for English Version


[লেখক: মো শাহীন আলম]


Narail Ancient Heritage Jorbangla Temple



Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *