প্রাচীন পারস্য সভ্যতা | Ancient Persian Civilization


খ্রিস্টপূর্ব ৫০ শতকে আর্য জাতির কয়েকটি শাখা বর্তমান ইরানের পশ্চিম অঞ্চলে বসবাস করতে শুরু করে। এ আর্য জাতির যে শাখা ইরানের দক্ষিণে বসতি স্থাপন করে তাদেরকে পারসিক বলা হয়ে থাকে। আর পারসিকদের মূল কেন্দ্র ছিল ‘পারসিপলিস’। খ্রিস্টপূর্ব ২০০ থেকে ৬০০ অব্দের মধ্যে ইরানে একটি অতি উন্নত সভ্যতা গড়ে উঠে। আর এ উন্নত সভ্যতাকে পারস্য সভ্যতা বলা হয়ে থাকে। নিম্নে এ সভ্যতা সম্পর্কে সংক্ষেপে তুলে ধরা হল।

১. যে দেশটি প্রাচীনকালে পারস্য নামে পরিচিত ছিল- ইরান।
২. পারস্যের ইতিহাসে সবচেয়ে সফল শাসক ছিলেন- দারিয়ূস।
৩. পারস্য সভ্যতার অপর নাম- একমেনিড সভ্যতা।
৪. পারসিক দিনপঞ্জি তৈরি করেন- দারিয়ূস।
৫. পারসিকগণ ‘আহুরামাজদ’ বলে- সর্বশক্তিমান প্রভুকে।
৬. পারসিকদের ধর্ম বিশ্বাসকে সাধারণত- জরথুস্ত্র বলা হয়ে থাকে।
৭. জরথুস্ত্র ধর্মের উপাস্য দেবতার নাম- ‘আহুরামাজদ’।
৮. পারসিকদেরকে- অগ্নি উপাসক বলা হয়।
৯. পারসিকরা লিখত- কিউনিফর্ম লিপিতে। [সংকলিত]


[Tags: Ancient Persian Civilization, Persian History, GK International Affairs, general knowledge, সাধারণ জ্ঞান, আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি.]


 

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *