রস্টোর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির স্তর তত্ত্ব

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি [Economic Growth] বলতে সাধারণতঃ নির্দিষ্ট কোন সময়ে যে কোন একটি দেশের অর্থনীতিতে পণ্য এবং সেবার উৎপাদন বৃদ্ধিকে বুঝায়। আবার, কোন দেশের মোট দেশজ উৎপাদন বৃদ্ধির শতকরা হারকেও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হিসেবে সংজ্ঞায়িত করা হয়।

আমেরিকান অর্থনীতিবিদ ওয়াল্ট হুইটম্যান রস্টো (Walt Whitman Rostow) এর প্রদত্ত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির স্তর/পর্যায় (stages of economic growth) অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ঐতিহাসিক মডেলগুলোর মধ্যে একটি। ওয়াল্ট হুইটম্যান রস্টো তাঁর গ্রন্থ The Stages of Economic Growth: A Non-communist manifesto – এ ১৯৬০ সালে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির মডেল বা স্তর তত্ত্বটি প্রকাশ করেন। 

Walt Whitman Rostow (W. W. Rostow) দেখান যে, প্রতিটি সমাজ বা জাতিকে সামগ্রিক আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য ৫টি মৌলিক পর্যায় বা স্তর অতিক্রম করতে হয়। এ পর্যায় বা স্তরগুলোর হল: 

১। সনাতন বা ঐতিহ্যবাহী সমাজ ব্যবস্থা (the traditional society);

২। উড্ডয়নের পূর্বাবস্থা বা প্রাক্-উত্তরণ অবস্থা (the preconditions for take-off);

৩। উড্ডয়নকাল বা উত্তরণ স্তর (the take-off);

৪। পূর্ণ বিকাশের পথে যাত্রা বা পরিণত স্তর (the drive to maturity); এবং

৫। গণভোগের কাল বা স্তর (the age of high mass-consumption)

১। সনাতন বা ঐতিহ্যবাহী সমাজ ব্যবস্থা: রস্টোর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির স্তর তত্ত্ব অনুযায়ী অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির প্রথম স্তর হল সনাতন সমাজ বা ঐতিহ্যবাহী সমাজ ব্যবস্থা। এ স্তরের মূল বৈশিষ্ট্য হল আদিম স্তরের প্রযুক্তিবিদ্যা, আনুক্রমিক বা সামন্ততান্ত্রিক সামাজিক শ্রেণি বিন্যাস, ইত্যাদি।

২। উড্ডয়নের পূর্বাবস্থা বা প্রাক্-উত্তরণ অবস্থা: অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির দ্বিতীয় স্তর হল উড্ডয়নের পূর্বাবস্থা বা প্রাক্-উত্তরণ অবস্থা। এ স্তরে ঔপনিবেশিক শাসন বা বাহিরের হস্তক্ষেপের ফলে সনাতন বা ঐতিহ্যবাহী সমাজ ব্যবস্থায় ভাঙ্গন শুরু হয় এবং উন্নয়নের দ্বিতীয় স্তরে প্রবেশ করে। এ সময়ে পুঁজি সঞ্চয়ন শুরু করা হয়।

৩। উড্ডয়নকাল বা উত্তরণ স্তর: অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির তৃতীয় স্তর হল উড্ডয়নকাল বা উত্তরণ স্তর। এ স্তরে আধুনিক সমাজ ব্যবস্থার যাত্রা শুরু হয় এবং উন্নয়নের তৃতীয় স্তরে প্রবেশ করে। সমাজের অর্থনীতি স্বনির্ভরতার দিকে অগ্রসর হয়। 

৪। পূর্ণ বিকাশের পথে যাত্রা বা পরিণত স্তর: অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির চতুর্থ পর্যায় বা স্তর হল পূর্ণ বিকাশের পথে যাত্রা বা পরিণত স্তর। এ স্তরে বৃহৎ আকারের প্রস্তুতকারী শিল্প গড়ে উঠে। অর্থনৈতিক উন্নয়নের ফলে আমদানি হ্রাস পায়। 

৫। গণভোগের কাল বা স্তর: অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির সর্বশেষ বা চতুর্থ পর্যায় বা স্তর হল গণভোগের কাল বা স্তর। এপর্যায়ে ভোগ্য পণ্য উৎপাদনের গুরুত্ব বাড়ে এবং সেবা খাত শক্তিশালী হয়। তাই একে গণভোগ স্তর হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

Rostow-এর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বা উন্নয়ন তত্ত্বটি মার্ক্সের (Marx) ঐতিহাসিক সমাজ বিবর্তনের ধারণার আলোকে উপস্থাপন করা হয়েছে। তবে এদের তত্ত্বগত মূল পার্থক্য হল, Rostow মার্ক্সের বিপরীতে সমাজ উন্নয়নের ক্ষেত্রে পুঁজিবাদ বিকাশকে অত্যাবশ্যক মনে করেন। [মো: শাহীন আলম]


অর্থনৈতিক উন্নয়নের স্তর তত্ত্ব


সহায়িকা: বাকী, আবদুল, ২০১৩, ভুবনকোষ, সুজনেষু প্রকাশনী, ঢাকা, পৃষ্ঠা ৩৯।


Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *