বাংলাদেশের প্রাচীন যুগ : প্রাক-আর্য থেকে সেন বংশ

১. সমগ্র বাঙ্গালী জনগোষ্ঠীকে দুই ভাগে ভাগ করা হয়েছে – প্রাক-আর্য(অনার্য) জনগোষ্ঠী ও আর্য জনগোষ্ঠী।
২. প্রাক-আর্য জনগোষ্ঠীকে চারভাগে ভাগ করা যায় – নেগ্রিটো, অস্ট্রিক, দ্রাবিড় ও মঙ্গোলীয়।
৩. বাঙালী জাতির প্রধান অংশ গড়ে উঠেছে – অস্ট্রিক জাতি থেকে।
৪. আর্যদের আদিনিবাস ছিল – ইউরাল পর্বতের দক্ষিণে (বর্তমান মধ্য এশিয়ার ইরানে)।
৫. বাংলাদেশের প্রাচীন জাতি – দ্রাবিড়।
৬. আর্যদের ধর্মগ্রন্থের নাম – বেদ
৭. বাংলাদেশে বসবাসকারী উপজাতিদের বড় অংশ – মঙ্গোলয়েড।
৮. বাংলাদেশের সর্বপ্রাচীন জনপদের নাম – পুন্ড্র।
৯. পুন্ড্র জনপদের অর্ন্তভূক্ত ছিল – বৃহত্তর বগুড়া(মহাস্থনগড়), রাজশাহী, রংপুর ও দিনাজপুর।
১০. বরেন্দ্র জনপদের অর্ন্তভূক্ত ছিল – রাজশাহী বিভাগের উত্তর-পশ্চিমাংশ, রংপুর ও দিনাজপুরের কিছু অংশ।
১১. বঙ্গ জনপদের অর্ন্তভূক্ত ছিল – বৃহত্তর ঢাকা, ময়মনসিংহ, কুমিল্লা, ফরিদপুর, বরিশাল ও পটুয়াখালী।
১২. সমতট জনপদের অর্ন্তভুক্ত ছিল – পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্ব বাংলা(বৃহত্তর কুমিল্লা ও নোয়াখালী)
১৩. চন্দ্রদ্বীপ জনপদের অর্ন্তভূক্ত ছিল – বরিশাল, পিরোজপুর, পটুয়াখালী, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, খুলনা ও বাগেরহাট।
১৪. গৌড় জনপদের অর্ন্তভূক্ত ছিল – পশ্চিম বাংলার মালদহ, মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, বর্ধমান ও বাংলাদেশের চাঁপাইনবাবগঞ্জ।
১৫. রাঢ় জনপদের অর্ন্তভূক্ত ছিল – পশ্চিম বাংলার দক্ষিণাংশ(বর্ধমান জেলা)।
১৬. হরিকেল জনপদের অর্ন্তভূক্ত ছিল – সিলেট ও চট্রগ্রাম।
১৭. ভারতীয় উপমহাদেশের প্রথম সাম্রাজ্য হল – মৌর্য সাম্রাজ্য।
১৮. মৌর্য সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা হলেন – চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য (ভারতের প্রথম সম্রাট)।
১৯. মৌর্য সাম্রাজ্যের রাজধানী হল – পাটলিপুত্র।
২০. মৌর্য বংশের তৃতীয় সম্রাট ছিলে – সম্রাট অশোক।
২১. ‘অর্থশাস্ত্র’ রচনা করেছেন – কৌটিল্য।
২২. গুপ্ত যুগকে ভারতীয় উপমহাদেশের – স্বর্ণযুগ বলা হয়।
২৩.  ভারতের গুপ্তবংশের প্রকৃত প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন – প্রথম চন্দ্রগুপ্ত।
২৪. গুপ্তবংশের শ্রেষ্ঠ রাজা ছিলেন – সমুদ্রগুপ্ত।
২৫. প্রাচীন বাংলায় কতটি রাজ্য ছিল – ২টি রাজ্য।
২৬. প্রাচীন কালে বাংলাদেশের নাম ছিল – বঙ্গ।
২৭. প্রাচীন জনপদগুলোকে একত্রিত করে গৌড় রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেন – শশাঙ্ক।
২৮. পাল বংশের প্রথম রাজা ছিলেন – গোপাল।
২৯. পাল রাজাদের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ রাজা ছিলেন – গোপালের পূত্র ধর্মপাল।
৩০. বাংলায় প্রথম বংশানুক্রমিক শাসন শুরু করেন – গোপাল।
৩১. বাংলার প্রথম দীর্ঘস্থায়ী রাজবংশের নাম – পাল বংশ।
৩২. বাংলায় সেন বংশের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন – সামন্ত সেন।
৩৩. সেন বংশের সর্বশ্রেষ্ঠ রাজা ছিলেন – বিজয়সেন।
৩৪. বাংলায় শেষ হিন্দু রাজা ছিলেন – লক্ষ্মণ সেন।

সংগ্রহে:
মো. সাইফুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা বিভাগ
সরকারি ভোলা কলেজ, ভোলা।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *