বিশ্ব কবির স্মৃতি বিজড়িত দি মহর্ষী চ্যারিটেবল ডিসপেন্সারী | কুষ্টিয়া

চ্যারিটেবল ডিসপেন্সারী

 অবস্থান | Location

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতি বিজড়িত ‘দি মহর্ষী চ্যারিটেবল ডিসপেন্সারী’ কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলাধীন শিলাইদহ ইউনিয়নের কসবা গ্রামে অবস্থিত। রবীন্দ্র কুঠি বাড়ি থেকে উত্তর দিকে প্রায় ৫৫০ মিটার এগিয়ে গেলে একটি তেমাথা সংলগ্ন উত্তর-পূর্ব কোণে খোরশেদপুর বাজারগামী পাকা রাস্তার উত্তর পাশে লাগোয়া এ ডিসপেন্সারীর অবস্থান। পদ্মা নদীর দক্ষিণ তীরে অবস্থিত বিশ্বকবির স্মৃতি বিজড়িত দি মহর্ষী চ্যারিটেবল ডিসপেন্সারীটির ভূ-স্থানাঙ্ক (geo-coordinate) হল 23°55’26.5″N 89°13’24.7″E (23.924028, 89.223528)।

স্থাপত‌্যিক বিবরণ | Architectural Description

বিশ্বকবির স্মৃতি বিজড়িত দি মহর্ষী চ্যারিটেবল ডিসপেন্সারীটি আয়তাকার পরিকল্পনার ২টি স্থাপনা সংযুক্ত করে এল (L) আকৃতির ভূমি পরিকল্পনায় (groundplan) নির্মিত একক স্থাপনা। ডিসপেন্সারিটি মূলত দক্ষিণ-পশ্চিমমুখী করে নির্মাণ করা হয়েছে। এক তলাবিশিষ্ট এ ডিসপেন্সারীটির উভয় পাশের স্থাপনার (সংযুক্ত দু’টি স্থাপনা) পরিমাপ সমান। এটির প্রতিটি স্থাপনা দেয়ালসহ দৈর্ঘ্য ১০ মিটার ২৬ সেন্টিমিটার ও প্রস্থ ৪ মিটার ১১ সেন্টিমিটার। এটির দেয়ালগুলো ১ মিটার চওড়া। সম্পূর্ণ স্থাপনাটির স্থাপত্যিক বৈশিষ্ট্য অতি সাধারণ। এটির নির্মাণ উপকরণ হিসেবে ইট, চুন, বালি ও কাঠের ব্যবহার পরিলক্ষিত হয়েছে। তবে দেয়ালে সিমেন্টের আস্তর লক্ষ্য করা যায়। সম্ভবত পরবর্তীকালে সিমেণ্ট ব্যবহার করা হয়েছে। ছাদে কাঠের বর্গার ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়। সামনের দেয়ালে ইংরেজিতে ‘The MAHARSHI CHARITABLE DISPENSARY’ উৎকীর্ণ শিলালিপির ফলক রয়েছে। প্রাচীন এ স্থাপনাটি পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে। বর্তমানে এ স্থাপনার ছাদের অধিকাংশই নেই। এছাড়া এটির দরজা ও জানালার অধিকাংশের কপাট নেই। এটির দেয়ালের অনেক স্থানের আস্তর উঠে গেছে।

 

ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট | Historical Background

অষ্টাদশ – ঊনবিংশ শতাব্দীতে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের দাদা প্রিন্স দ্বারকানাথ ঠাকুর অন্যতম জমিদার ছিলেন। ১৮০৭ সালে প্রিন্স দ্বারকানাথ ঠাকুর জমিদারি ক্রয়ের সুবাদে কুষ্টিয়ার শিলাইদহের অনেক জমি এবং স্থাপনার মালিক হয়েছিলেন। ১৮৮৯ সালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তাঁর পৈতৃক এ জমিদারি দেখাশুনার ভার গ্রহণ করে শিলাইদহে আগমন করেন। রবীন্দ্রনাথ জমিদারি দেখাশুনার কারণে বহুদিন শিলাইদহে বসবাস করেন। জানা যায়, ঐ সময়ে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর জমিদারি পরিচালনার পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলের উন্নয়নে মনোযোগ দেন। এরই ধারাবাহিকতায় তিনি চিকিৎসা সেবার জন্য কসবা গ্রামে তৈরি করেন দি মহর্ষী চ্যারিটেবল ডিসপেন্সারী (দাতব্য চিকিৎসালয়)। ১৯ জুলাই ২০১৮ সালে প্রকাশিত বাংলাদেশ গেজেট অনুসারে কুষ্টিয়ায় অবস্থিত ‘বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতি বিজড়িত মহর্ষী চ্যারিটেবল ডিসপেন্সারী (দাবত্য চিকিৎসালয়)’ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক ঘোষিত একটি সংরক্ষিত পুরাকীর্তি, যা বর্তমানে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের তালিকাভূক্ত ও তত্ত্বাবধানে রয়েছে।

লেখক: মো. শাহীন আলম  

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *