সরল মুনাফা ও চক্রবৃদ্ধি মুনাফা | Simple Interest and Compound Interest

মুনাফা বা সুদ: কোন অর্থ বা টাকা ব্যাংকে গচ্ছিত রাখলে কিংবা কাউকে ধার দিলে কিংবা ব্যবসায় খাটালে, সে অর্থ বা টাকার পরিমাণ এবং সময়ের উপর নির্ভর করে নির্দিষ্ট হারে অতিরিক্ত যে অর্থ বা টাকা পাওয়া যায়, সে অতিরিক্ত অর্থ বা টাকাকে মুনাফা বা সুদ (interest) বলে। যেমন- ১০০০ টাকা ব্যাংকে জমা করে বছর শেষে ১১০০ টাকা পাওয়া গেল। এখানে, মুনাফা বা সুদ হল ১১০০-১০০০= ১০০ টাকা।

আসল বা মূলধন: যে অর্থ বা টাকা গচ্ছিত রাখা হয় কিংবা কাউকে ধার দেয়া হয় কিংবা ব্যবসায় খাটানো হয়, সে অর্থ বা টাকাকে আসল বা মূলধন (principal or capital) বলে।

মুনাফা-আসল বা সুদাসল: মুনাফা বা সুদ এবং আসলের টাকাকে একত্রে মুনাফা-আসল বা সুদাসল (interest principal/increased principal) বলে। অর্থাৎ মুনাফা-আসল= আসল+মুনাফা বা সুদাসল= আসল+সুদ।

মুনাফা বা সুদের হার: নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ বা টাকার উপর নির্দিষ্ট সময়ের জন্য যে মুনাফা বা সুদ প্রদান করা হয়, তাকে মুনাফার হার বা সুদের হার বলে। সাধারণত মুনাফা বা সুদের হার ১০০ টাকার উপর ১ বছরের জন্য ধরা হয়ে থাকে এবং তাকে শতকরা বার্ষিক মুনাফা বা সুদের হার ধরা হয়।

সরল মুনাফা বা সুদ: শুধু আসল বা মূলধনের উপর যে মুনাফা বা সুদ প্রদান করা হয় বা হিসাব করা হয়, তাকে সরল মুনাফা বা সুদ (simple interest) বলে।

সরল মুনাফা বা সুদ নির্ণয়ের সূত্র:

I= Pnr   বা  I= PXnXr

[এখানে, I= মুনাফা বা সুদ, P= আসল বা মূলধন, n= সময় এবং r= মুনাফা বা সুদের হার]

যৌগিক বা চক্রবৃদ্ধি মুনাফা বা সুদ: নির্দিষ্ট সময় শেষে উদ্ভূত বা সৃষ্ট মুনাফা-আসল বা সুদাসলকে মূলধন ধরে পরবর্তী নির্দিষ্ট সময়ের জন্য তার (মুনাফা-আসল বা সুদাসল) উপর মুনাফা নির্ধারণ করা হলে ঐ (সর্বশেষ) মুনাফাকে যৌগিক বা চক্রবৃদ্ধি মুনাফা বা সুদ (compound Interest) বলে। একে আবার সবৃদ্ধি মূলধনও বলা হয়।

যৌগিক বা চক্রবৃদ্ধি মুনাফা বা সুদ নির্ণয়ের সূত্র:

C= P(1+r)n

[এখানে, C= চক্রবৃদ্ধি মুনাফা বা মুনাফা-আসল, P= আসল বা মূলধন, n= সময় এবং r= মুনাফার হার]


[সংকলিত]


[Keywords: পাটিগণিত, গাণিতিক যুক্তি, Arithmetic, Math, Percentage Calculation, General Knowledge]


 

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *