বেলাশৈল | Fringing Reefs

বেলাশৈল, বেলা শৈল

বেলাশৈল [Fringing Reefs] বলতে সাধারণত মহাদেশ বা মহাসাগরীয় দ্বীপের কাছে প্রবাল কীটের দেহাবশেষ দিয়ে সারিবদ্ধভাবে সৃষ্ট এক ধরনের দ্বীপকে বুঝায়। ইংরেজি Fringing Reefs শব্দদ্বয়ের Fring এর অর্থ কিনারা, পাড়, আঁচল এবং Reef এর অর্থ শৈলশ্রেণি বা চড়া। অর্থাৎ প্রবাল কীটের মৃত দেহাবশেষ সমুদ্র তলদেশে সঞ্চিত হয়ে স্তূপ আকারে সমুদ্রের পানির উপরে জেগে উঠে। জেগে উঠা এসব প্রবাল স্তূপ শাড়ীর আঁচলের মত মহাদেশ বা মহাসাগরীয় দ্বীপের খুব নিকট দিয়ে প্রায় সমান্তরালে সারিবদ্ধভাবে অবস্থান করে। আর এসব প্রবাল স্তূপই মূলত: প্রবাল দ্বীপ। মহাসাগরীয় দ্বীপের খুব নিকট দিয়ে প্রায় সমান্তরালে সারিবদ্ধভাবে অবস্থিত এসব প্রবাল দ্বীপকেই বেলাশৈল বলে।

সুতরাং বেলা শৈল হল মূলত: প্রবাল কীট এবং চুনযুক্ত প্রাণী অগভীর সাগরের তলদেশে সঞ্চিত হয়ে গড়ে উঠা সংকীর্ণ প্রবাল স্তূপ বা প্রবাল মঞ্চ। সাধারণত এসব প্রবাল স্তূপ সমুদ্রতল থেকে ক্রমশ সরু হয়ে উপরের দিকে উত্থিত হয়। বেলাশৈলের উপরিভাগ অসমতল থাকে। বেলাশৈলগুলো সমূদ্রের দিকে প্রায় ১ থেকে ১.৫ কিলোমিটার প্রশস্ত এবং প্রায় ৩০ থেকে ৫০ মিটার গভীর হয়। বেলাশৈল এবং মহাদেশীয় মূল ভূভাগের মধ্যস্থলে অগভীর পানিরাশি দিয়ে উপহ্রদ বা লেগুন (lagoon) সৃষ্টি করে। ভারতের দাক্ষিণাত্য এবং শ্রীলংকার মধ্যবর্তী পক প্রণালীতে বেলাশৈল লক্ষ্য করা যায়।



বেলাশৈল বলতে কি বুঝায়?


 

Add a Comment

Your email address will not be published.